অকৃত্রিম; শ্লোক - ৪২৫

কোন শিশুই আপন ইচ্ছায়
পৃথিবীতে আসে না।
কেউ কখনো মায়ের মতন
যত্নে ভালোবাসে না।

পাদটীকা: কিছু কিছু বিষয় ঘটে প্রাকৃতিক নিয়মে। আর এই কারণেই মায়ের ভালোবাসার তুলনা কারো সাথে হয় না।
আরিফুর রহমান, নরওয়ে।

অনাচার; শ্লোক - ৪২৪

দূর্বলের উপর ‌অত্যাচার
হয় নানা অজুহাতে।
ভাতের থালা কেড়ে নিয়ে,
ছাইয়ের থালা পাতে।

পাদটীকা: কথাগুলি দুর্বলের প্রতি সবলের অন্যায় এবং অত্যাচার প্রসঙ্গে। কোন কোন সমাজে সংখ্যালঘুরা পদে পদে সংখ্যাগুরুদের দ্বারা নির্যাতিত।
আরিফুর রহমান, নরওয়ে।

শেষ দেখা; শ্লোক - ৪২৩

সেই দেখাই শেষ দেখা ছিলো,
বিদায় বেলায় তা বুঝিনি, মা।
আর কখনোই দেখা হবে না,
হৃদয় জুড়ে হাহাকার শূণ্যতা।

পাদটীকা: ২০১০ সালে আমার মায়ের সঙ্গে শেষ দেখা প্রসঙ্গে। ২০১২ সালে তিনি মারা যান। মৃত্যুকালে শেষ দেখা সম্ভব হয়নি। আর এটিই আমার জীবনের সব চেয়ে বড় অসামর্থতা।
আরিফুর রহমান, নরওয়ে।

পুনরাবৃত্তি; শ্লোক - ৪২২

ইতিহাসের পুনরাবৃত্তি ঘটে;
পুরাতন পণ্য নব মোড়কে।
নতুন যাত্রী তুলে পুরনো
গাড়ী চলে নতুন সড়কে।

পাদটীকা: সমাজে এবং রাজনীতিতে অনেক ঘটনারই পুনরাবৃত্তি ঘটে। যেমনটা, ব্যবসায় পুরাতন পণ্যকে নতুন রূপে বাজারজাত করা হয়।
আরিফুর রহমান, নরওয়ে।

ধারণা বদল; শ্লোক - ৪২১

ব্যাঙ যখন কুঁয়োতে থাকে
কুঁয়োকেই ভাবে বিশ্ব।
সাগরে ব্যাঙ যখন মেলে,
খুঁজে পায় নব অস্তিত্ব।

পাদটীকা: সময়ের সাথে সাথে ব্যক্তির অবস্থানের পরিবর্তনের কারণে ব্যক্তি নতুন অভিজ্ঞতা লাভ করে। যে বিষয়ে শূণ্য ধারণা ছিলো সে বিষয়ে ধারণা লাভ করে, আর যে বিষয়ে স্বল্প ধারণা ছিলো সেই বিষয়ে অধিকতর ধারণা লাভ করে।
আরিফুর রহমান, নরওয়ে।

অপরিবর্তনীয়; শ্লোক - ৪২০

যে বাঙাল শিক্ষিত হয়েও,
পানি পড়ায় বিশ্বাস করে।
সে কার্টুন দেখে সভ্য হবে,
বিশ্বাস করি কেমন করে?

পাদটীকা: মানুষের কুসংস্কার এবং অন্ধবিশ্বাস দূরীকরণের প্রসঙ্গে। এটি মূলত একটি প্রশ্ন।
আরিফুর রহমান, নরওয়ে।

লক্ষ্য ও কর্তব্য; শ্লোক - ৪১৯

চোখ থাকতে ভুল পথে যায়
সে জন পথহারা, সে তালকানা।
উজান জীবনের লক্ষ্য হলে,
ভাটির স্রোতে গা ভাসানো মানা।

পাদটীকা: জীবনের লক্ষ্যার্জনের লক্ষ্যে কর্তব্য পালনের কোনো বিকল্প নাই।
আরিফুর রহমান, নরওয়ে।



ভাবাদর্শ; শ্লোক - ৪১৮

ভাবাদর্শ অমর রয়;
শরীরের মৃত্যু হয়।
মানুষ থেকে মানুষে
যুগ যুগ বেঁচে রয়।

পাদটীকা: আদর্শ এবং মূল্যবোধের মৃত্যু নাই।
আরিফুর রহমান, নরওয়ে।

স্বভাব; শ্লোক - ৪১৭

ঢেঁকি যদি স্বর্গেও যায়
বাঁধে সে ধান।
বাঙালি জন যেথা যায়
গায় বাংলা গান।

পাদটীকা: মানুষের স্বভাব এবং চিরাচরিত সংস্কার সহজে পরিবর্তন হয় না।
আরিফুর রহমান, নরওয়ে।

ঋতুচক্র; শ্লোক - ৪১৬

রাতের পর ভোর হয়
হাসে দিনের আলো।
দুখের পরে সুখ আসে
ঘুচায় সকল কালো।

পাদটীকা: জীবন সুখ দুঃখের ঋতুচক্র। পালাক্রমে সব কিছুই আসে, যায়।
আরিফুর রহমান, নরওয়ে।

সৌন্দর্য; শ্লোক - ৪১৫

গায়ে রঙ যেমনই হোক
অন্তর যার আলো।
সে জন ভালোর মাঝে
শত গুণে ভালো।

পাদটীকা: বাহ্যিক রূপের সৌন্দর্যের চেয়ে আত্মিক রূপের সৌন্দর্য অধিক গুরুত্বপূর্ণ।
আরিফুর রহমান, নরওয়ে।

সত্য প্রতিষ্ঠা; শ্লোক - ৪১৪

মিথ্যাকে সত্য হিসেবে প্রতিষ্ঠা
অনৈতিকতার পরিচয়।
সত্য সর্বদা প্রতিষ্ঠিত হোক,
মিথ্যাকে কখনো নয়।

পাদটীকা: জেনে বুঝে মিথ্যাকে প্রতিষ্ঠিত হতে সহায়তা করা উচিত নয়। সত্যের পক্ষে সর্বদা থাকা নৈতিক দায়িত্ব।
আরিফুর রহমান, নরওয়ে।

উদ্বাস্তু; শ্লোক - ৪১৩

আমরা সকলেই উদ্বাস্তু;
শুক্রাণুরূপে পিতা থেকে মাতৃগর্ভে।
গর্ভ থেকে মাতৃকোলে;
বদলাবদলি শেষে উদ্বাস্তু মৃত্যুগর্ভে।

পাদটীকা: মানুষ, সভ্যতার শুরু থেকেই উদ্বাস্তু। মানুষ জন্ম থেকে মৃত্যু অবধি উদ্বাস্তু।
আরিফুর রহমান, নরওয়ে।

অম্ল; শ্লোক - ৪১২

দুধে টক মিশালে
বদলে হয় ছানা।
সম্পর্কে সন্দেহে
বাঁধে তাতে দানা।

পাদটীকা: টক যেমন দুধের অবস্থার পরিবর্তনের কারণ, অনুরূপ সন্দেহ সুসম্পর্ক নষ্টের কারণ।
আরিফুর রহমান, নরওয়ে।

পরিচয়; শ্লোক - ৪১১

সুখের দিনে চারপাশে বহু বন্ধু
করে মিষ্টি কূজন।
দুর্দিনে আসিলে পরিচয় মেলে
প্রকৃত সুহৃদ সুজন।

পাদটীকা: সু সময়ে অনেকেই কাছে আসে, তবে দুর্দিনে কেবল প্রকৃত আপন জনেরাই পাশে থাকে।
আরিফুর রহমান, নরওয়ে।

শুদ্ধিকরণ; শ্লোক - ৪১০

হৃদয়ে যাহার থাকে ময়লা
উগ়্রে দেয় বাহ্যিক আচরণে।
তা দূর না হয় পবিত্র জলে;
দূর হয় আত্ম শুদ্ধিকরণে।

পাদটীকা: দুষ্টু প্রবৃত্তি তখনই দূর হয়, ব্যক্তি যখন আত্মশুদ্ধির চেষ্টায় সফল হয়।
আরিফুর রহমান, নরওয়ে।

স্বজন; শ্লোক - ৪০৯

ভালোবাসার মানুষকে
কেউ তচ্ছিল্য করে না।
কথায় কথায় দোষারোপ
স্বজন কখনো করে না।

পাদটীকা: ভালোবাসার মানুষকে কেউ কখনো অসম্মান করে না।
আরিফুর রহমান, নরওয়ে।

দেহত্যাগ; শ্লোক - ৪০৮

যে জন ভব মায়া ফেলে
ঈশ্বরলোকে যায় চলে।
আজীবন তপস্যাতেও
তার দেখা নাহি মেলে।

পাদটীকা: প্রাণ যদি একবার দেহ ত্যাগ করে, তাহলে সে আর কখনোই ফেরত আসে না।
আরিফুর রহমান, নরওয়ে।

ঠিকানা; শ্লোক - ৪০৭

অস্থির জীবন থেকে
যদি চাও অবসর।
পাখীর মত তুমিও
বাঁধো একটা ঘর।

পাদটীকা: অস্থির জীবন থেকে পরিত্রান পেতে চাইলে স্থির হওয়ার কোনো বিকল্প নাই।
আরিফুর রহমান, নরওয়ে।

মান; শ্লোক - ৪০৬

পয়সা হারিয়ে গেলে
পরিশ্রমে তা ফেরত মেলে।
যদি হয় সম্মানহানী,
না মেলে কবিরাজী তেলে।

পাদটীকা: টাকা পয়সা হারিয়ে গেলে পরিশ্রম করলে তা পুনরুদ্ধার করা যায়, কিন্তু সম্মানহানি সহজে পূরণীয় নয়।
আরিফুর রহমান, নরওয়ে।

মাতা; শ্লোক - ৪০৫

যে কেউ করতে পারে
মায়ের ভূমিকায় অভিনয়।
প্রকৃতার্থে মাতা হওয়া
অভিনয়ের মত সহজ নয়।

পাদটীকা: অভিনয় যে কেউ করতে পারে, কিন্তু প্রকৃতার্থে মা সকলেই হতে পারে না।

যোগ্যতা; শ্লোক - ৪০৪

সম্মান এবং যোগ্যতা
মেলে সু কর্ম সাধানায়।
প্রেম ভালোবাসা মেলে
সম্মান যত্ন প্রকাশনায়।

পাদটীকা: উপযুক্ত কর্ম করলেই কেবল উপযুক্ত ফল মেলে।   

গুণ; শ্লোক - ৪০৩

সুশ্রী এবং সুজন
একই গুণ নয়;
বাহ্যিক ও আত্মীক
দুটি ভিন্নতায়।

পাদটীকা: সুন্দর এবং ভালো মানুষ এক বিষয় নয়। রূপ আর গুণ দুটি ভিন্ন বিষয়।

স্মৃতিভ্রম; শ্লোক - ৪০২

মানুষ স্বল্প সময়ে স্মৃতিভ্রম,
দ্রুত ভুলে যায়, তালকানায়।
ভুলের পালে হাওয়া লাগে,
পুকুর ভরে কচুর পানায়।

পাদটীকা: অবহেলা, এবং যথা সময়ে যথা কর্তব্য সম্পাদন না করার কারণে সমাজে সমস্যা ক্রম বর্ধমান।

মূল্যায়ন; শ্লোক - ৪০১

কে কতটুকু বেসে ছিলো ভালো,
তব তরে মুখ করে ছিলো কালো।
অতীত ভাবিয়া, বর্তমান ভবিষ্যতে
যোগ্য পাতে, যোগ্য সুধা ঢালো।

পাদটীকা: মানুষের যোগ্যতার মূল্যায়ন করা উচিত। যে যেটা পাওয়ার দাবি রাখে তাকে সেটা দেয়া উচিত।

সমতা; শ্লোক - ৪০০

যত আছে নারী পুরুষ কিন্নর কিন্নরী,
মানবিক মাপে সকলেই সমান।
একই পথে ভূমিষ্ট সব মানব সন্তান,
সকলের তরে সমান সম্মান।

পাদটীকা: মানবিক মূল্যবোধের পরিমাপে, মানুষ হিসেবে প্রতিটি মানুষই সমান।
আরিফুর রহমান, নরওয়ে।

প্রৌঢ়ি; শ্লোক - ৩৯৯

পানি ঢালার সময়,
পাত্রের ধারণ ক্ষমতার দিকে
খেয়াল রাখতে হয়,
অমাত্রা ঢালিলে হয় অপচয়।

পাদটীকা: যে পাত্রের ধারণ ক্ষমতা যতটুকু, সেই পাত্রে ততটুকুই ক্ষমতা দেয়া উচিত।

বাস্তবতা; শ্লোক - ৩৯৮

অভাব অনটন দেয় কষ্ট,
চাপে পড়ে হয় স্বভাব নষ্ট।
দূর থেকে না যায় দেখা,
কাছে আসলে সব স্পষ্ট।

পাদটীকা: পরিবেশ পরিস্থিতিতে মানুষ ভুল সিদ্ধান্ত নিয়ে থাকে, তবে তৃতীয় দৃষ্টি ভঙ্গি থেকে বাস্তবতা সব সময় বোঝা সম্ভব হয় না।

মুখোশ; শ্লোক - ৩৯৭

দুষ্টু লোকের মিষ্টি কথা,
সদাচার সন্মুখে সর্বদায়।
অলক্ষ্যে করে পুকুর চুরি,
মুখোশ ঢাকে সাদা পর্দায়।

পাদটীকা: কোন কোন মানুষের মিষ্টি কথার  আড়ালে স্বার্থোদ্ধারের দুরভিসন্ধি লুকিয়ে থাকে।

ছবি: সার্কান টার্ক

বৈশিষ্ট্য; শ্লোক - ৩৯৬

প্রকৃত মহাজন আপন গুণে মহান,
অন্যকে সে না করে অপমান।
প্রকৃত জ্ঞানীজন, জ্ঞান করে দান;
আচরণেই হয় বৈশিষ্ট্য প্রমাণ।

পাদটীকা: মহানুভবতা বা আত্মীয়তা মানুষের গায়ে লেখা থাকে না, আচরণে প্রকাশ পায়।

ছবি: রায়ান কুইন্টাল

ভান; শ্লোক - ৩৯৫

দুষ্টু লোকের মিষ্টি কথা;
সুযোগ বুঝিয়া দেয় ব্যথা।
বাহির মহলে রঙের ছটা;
ময়লা ঢাকে নকশি কাঁথা।

পাদটীকা: কোন কোন মানুষ বাহিরে এক রকম এবং ভিতরে অন্য রকম।

ছবি: রায়ান কুইন্টাল

শ্লোক পরিসংখ্যান

© শব্দ ২০১২ - বর্তমান, আরিফুর রহমান কতৃর্ক রচিত এবং সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত।